একজন ফটোগ্রাফার হিসাবে আপনিও অনলাইনে টাকা উপার্জন করতে পারবেন , যেমন করে থাকেন একজন YouTuber বা একজন Instagrammer করে পারে।

এর জন্য আপনাকে কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করে হবে যেমন –
১.Finding your niche
২.Building an audience
৩.Creating several streams of passive income

অনলাইনে কিভাবে ফটো বিক্রি করে পারবেন আমাদের এই পোস্টের মাধ্যমে সেটা জানতে পারবেন। এর সাথে জানতে পারবেন কোথায় সেল করতে পারবেন। ফটো সেল করার কিছু ওয়েবসাইট আপানদের সাথে শেয়ার করতে যাচ্ছি।

অনলাইনে কিভাবে ফটো বিক্রি করে পারবেন আমাদের এই পোস্টের মাধ্যমে সেটা জানতে পারবেন। এর সাথে জানতে পারবেন কোথায় সেল করতে পারবেন। ফটো সেল করার কিছু ওয়েবসাইট আপানদের সাথে শেয়ার করতে যাচ্ছি।

Table of Contents

1.Best places to sell photos online
2.Two essential steps to sell photos online
3.How to sell photography prints and products
4.How to sell your photography as a service
5.Legal primer for selling photos online
6.How to sell photos online FAQ

Best places to sell photos online:

অনলাইনে ছবি এবং ফটো বিক্রি শুরু করার জন্য, বা লাইসেন্স করার জন্য এখানে ৩৫টি সাইট দেয়া আছে।
To start, here are 35 best places to sell or license images and photos online:

Shutterstock

Fotolia

Dreamstime

Gettyimages

Istockphoto

Stocksy

Canstockphoto

Crestock

BigStockPhoto

123rf

Alamy

Depositphotos

Westend61

CavanImages

Offset

https://www.pond5.com/
https://creativemarket.com/
https://yayimages.com/
https://snapped4u.com/
https://www.instaproofs.com/home/
https://www.smugmug.com/
https://www.etsy.com/
https://www.twenty20.com/
https://www.eyeem.com/
https://www.foap.com/photographer

https://pixieset.com/
https://www.eyeem.com/
https://500px.com/
https://www.photoshelter.com/
https://www.photocase.com/
https://gurushots.com/
https://fineartamerica.com/
https://www.fotomoto.com/
https://stock.adobe.com/
There are a lot of stock photo sites to choose from. Let’s look at the top places to sell photos online:
ফটো বিক্রির অনেক সাইট আছে ,আমরা এখানে কিছু বেস্ট সাইট নিয়ে আলোচনা করবো।

CEO Sundar Pichai announced

CEO Sundar Pichai জুলাইয়ে ঘোষণা করেছিলেন যে কোম্পানির অফিসে ফিরে আসাদের জন্য টিকা দেয়া বাধ্যতামূলক ।পরিকল্পনা ছিল জানুয়ারিতে আবার চালু করার। কিন্তু ডিসেম্বরের শুরুতে, সংক্রমণের সংখ্যা নিয়ে চলমান উদ্বেগের মধ্যে, গুগল মার্কিন কর্মীদের বলেছিল যে তাদের অফিসে ফিরে যাওয়ার প্রয়োজন হবে না। যাইহোক, নেতৃত্ব কর্মীদের “যেখানে পরিস্থিতি ব্যক্তিগতভাবে সহকর্মীদের সাথে পুনরায় সংযোগ স্থাপন করতে এবং অফিসে আরও নিয়মিত আসার অনুমতি দেয়”

সর্বশেষ নির্দেশনায়, যারা টিকা নিতে চান না তাদের জন্য Google কিছু বিকল্পের বিবরণ দেয়। সংস্থাটি বলেছে যে Google-এ এমন কোনও ভূমিকা থাকলে কর্মীরা “অন্বেষণ” করতে পারেন যা executive order এর সাথে সাংঘর্ষিক না হয় । তারা ধর্মীয় বিশ্বাস বা চিকিৎসা সংক্রান্ত অবস্থার কথা চিন্তাকরেও টিকা না দেয়ার অনুরোধ করতে পারে, যা Google আগে বলেছিল কেস-বাই-কেস ভিত্তিতে দেওয়া হবে।

অবৈতনিক ব্যক্তিগত ছুটিতে থাকা কর্মচারীরা প্রথম 92 দিনের জন্য তাদের সুবিধা রাখতে সক্ষম হবেন, মেমোতে বলা হয়েছে। যদি ছয় মাস পরেও তারা আদেশের সাথে সম্মত না হয়, “Google-এর সাথে তাদের কর্মসংস্থান শেষ হয়ে যাবে।”