এই বইটি আপনাকে অনেক কিছু শিখতে সাহায্য করবে। স্যার এর এই বইটা পরে অনেকেই অনুপ্রানিত হয়েছেন। এ পি জে আব্দুল কালামের জীবন খুব সহজ সরল ভাবে শুরু হয়নি। তবুও সে সফলতার উচ্চশিখরে অবস্থান করেছেন। তার সফলতার গল্প শুনলে হয়তো ভাববেন এগুলো কাল্পনিক। বাস্তবে তা না। আমাদের উচিৎ এরকম সফল মানুষের চিন্তা চেতনা সম্পর্কে ধারণা রাখা। আর তাই আমাদের ওনার লেখা পড়া উচিৎ।

এ পি জে আব্দুল কালামের নিজের লেখা একটি আত্মজীবনী মূলক বই হচ্ছে ‘উইং অফ ফায়ার । বইটি এ পি জে আব্দুল কালামের নিজে এবং অরুন তেওয়ারী মিলে লিখেছেন যৌথভাবে। আমার ক্ষুদ্র জীবনে পড়ার মধ্যে সবচেয়ে Favourite অটো বায়োগ্রাফি। বইটার প্রতিটা কথা ভালো লাগে, হৃদয়ে গিয়ে লাগে। এই বইয়ের ১৮০ পৃষ্ঠার রিভিউ সম্পূর্ণ রূপে লেখা আমার এই ক্ষুদ্র মেধার দ্বারা সম্ভব হলো না। যতটুকু পেরেছি লিখেছি। আমি মনে করি বইটি সকলকেই অণুপ্রেরণা দেবার জন্য যথার্থ। তার মাঝে আমি খুজে পেয়েছি শিক্ষক ভক্তি,তার মাঝে পেয়েছি কোন কঠিন কাজকে সহজ ভাবে সম্পন্ন করার মানসিকতা।

ভারতের প্রয়াত রাষ্ট্রপতি হচ্ছে এই বইয়ের লেখক ‘উইংস অব ফায়ার।  রাষ্ট্রপতি থাকলেও তার আরেক ভাবে পরিচিতি আছে, তিনি  পৃথিবীর একজন বিখ্যাত পরমানু বিজ্ঞানী। । তার পুরা নাম আবুল পাকির জয়নুলাবদিন আবদুল কালাম। তার জন্ম ১৯৩১ সালে ভারতের তামিল নাড়ু রাজ্যের রামেশরমে। তিনি একটি অল্প শিক্ষিত পরিবার থেকে এসেছেন। তার পিতা ছিলেন একজন নৌকার মালিক। প্রতিরক্ষা বিজ্ঞানী হিসেবে ক্যারিয়ার শুরু করেন কালাম এবং পরবর্তী সময়ে অসামান্য অবদানের জন্য ভারতের সর্বোচ্চ বেসামরিক পুরস্কার ‘ভারতরত্ন অর্জন করেন।

Wings of Fire Bangla Pdf  বইটিতে  তার জীবনের শৈশব থেকে শুরু করে সবকিছু বর্ননা করেছেন। তিনি এই বইটিতে তুলে ধরেছেন কিভাবে অল্প শিক্ষিত পরিবার থেকে এসে নিজের যোগ্যতায় কিভাবে এই অনন্য উচ্চতায় পৌছান । তার তৈরি অগ্নি, পৃথ্বী, আবাশ, ত্রিশুল ও নাগ ক্ষেপণাস্ত্রগুলোর নেপথ্য-কাহিনী। ভারতকে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে উন্নীত করে শক্তির দিক থেকে এই ক্ষেপনাস্ত্র । তার এইসব অসামান্য কাজ গুলোর জন্যই ভারত এখন পৃথিবীর বুকে একটি বড় পরাশক্তি। এই পরমানু বিজ্ঞানী তার কর্মক্ষেত্রে প্রতিদিন ১৮ ঘন্টা কাজ করেছেন।

এ. পি. জে. আবদুল কালাম এর লেখা এই আত্মজীবনী বই বাংলাতে অনুবাদ হয়ে প্রকাশিত হয় ২০০২ সালের ১৫ অক্টোবর। পৃথিবীতে প্রতিটি মানুষ জন্ম নেয় অমিত সম্ভাবনা নিয়ে।কারও সম্ভাবনা সম্ভবে পরিণত হয় আবার কারও সম্ভাবনা অসম্ভবই থেকে যায়। পৃথিবীতে ব্যর্থ মানুষের সংখ্যা অনেক বেশী। সফল মানুষের সংখ্যা খুব কম। এত সম্ভাবনাময় একটি জীব কেন নিজের এই সম্ভবনাকে সফলতায় নিয়ে আসতে পারে না? এই সবগুলোর উত্তর দেয়া আছে এ পি জে আব্দুল কালামের এই বইয়ে।

খুব সাধারন পরিবারে জন্ম নিয়ে কিভাবে পরমানু বিজ্ঞানী হয়ে উঠেন। একদম শৈশব থেকে শুরু করে তার জীবনের বেড়ে উঠা বর্ননা করে গেছেন তার গভীর  অন্তর্দৃষ্টি এবং প্রজ্ঞার আলোকে। পাশাপাশি উঠে এসেছে একজন বিজ্ঞানী হিসেবে তার মহাকাশ গবেষণা বিষয়ক নানা পর্যবেক্ষন এবং ক্ষেপনাস্র গুলো তৈরী করার নেপথ্য কাহিনী।

আমি মনে করি এই বইটা শুধু একবার পড়ে সেলফে সাজিয়ে রাখার মত না। এরকম বই বার বার পড়তে হয়। একেকবার পড়ায় একেকটা চিন্তার দুয়ার খুলে যায়। একজন আলোকিত মানুষের জীবনবোধ, অভিজ্ঞতা, কিছু অমর বানী পাল্টে দিতে পারে অনেকগুলো জীবন। আমি সবশেষে বলব যতবার সম্ভব এই বইটি পড়ুন, যা আপনাকে এরকম একজন আলোকিত মানুষ হতে অনুপ্রেরণা যোগাবে।

এ. পি. জে. আবদুল কালাম একটি বিখ্যাত বানী “Dreams are not those which comes while we are sleeping but dreams are those when u don’t sleep before fulfilling them.”

১) নামঃ উইংস অব ফায়ার – Wings of Fire Pdf Bangla ক্যাটাগরিঃ বাংলা অনুবাদ বই / Bangla Onubad Boi সিরিজঃ নাই লেখকঃ এ. পি. জে. আবদুল কালাম পিডিএফ সাইজঃ ১৭ এমবি পৃষ্ঠাঃ ১৭৯

বিখ্যাত Wings of Fire Bangla Pdf বইটি আপনাদের বিনোদনের জন্যই আপলোড করা।

বিঃদ্রঃ যেকোন কারনে বাংলা বই – Bangla Boi এর ডাউনলোড Link কাজ না করলে, নিচের কমেন্ট বক্সে অতিবাহিত করবেন। যত দ্রুত সম্ভব আপনার সমস্যা টির সমাধান করা হবে। ধন্যবাদ।